বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে হারা আফগানিস্তান খেয়েছে বড় ধাক্কা। দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ শাহজাদ। টুর্নামেন্ট শেষ হয়ে গেছে নিয়মিত অধিনায়ক আসগর স্তানিকজাইয়ের।

‘বি’ গ্রুপে দলের শেষ দুই ম্যাচে খেলতে পারবেন না শাহজাদ। দুই বছরের মধ্যে চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট পাওয়ায় এই শাস্তি পেয়েছেন এই ওপেনার।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৯৭ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নবম ওভারে আউট হন শাহজাদ। নিজের ওপর রেগে গিয়ে পাশের উইকেটে ব্যাট দিয়ে জোরে আঘাত করেন এই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান। উইকেটে তৈরি হয় ক্ষত। এই কাণ্ডে একটি ডিমেরিট পয়েন্ট পান তিনি। সঙ্গে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয় তাকে।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছিলেন শাহজাদ। সব মিলিয়ে চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট পাওয়ায় হয়ে গেছে দুটি সাসপেনশন পয়েন্ট। তাই হংকং ও নেপালের বিপক্ষে খেলা হবে না তার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচের আগে অ্যাপেন্ডিকসের অস্ত্রোপচার হয় আফগান অধিনায়ক আসগরের। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছিল, ১০ দিনের মধ্যে মাঠে ফিরবেন তিনি। তার জায়গায় দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ১৯ বছর বয়সী লেগ স্পিনার রশিদ খান।

সেরে না উঠায় টুর্নামেন্টই শেষ হয়ে গেছে আসগরের। তার জায়গায় আফগানিস্তান দলে নিয়েছে ২৪ বছর বয়সী উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আফসার জাজাইকে।

জিম্বাবুয়ে-আফগানিস্তানের সেই ম্যাচে শাস্তি হয়েছে ব্রেন্ডন টেইলর ও মুজিব উইর রহমানেরও।

জিম্বাবুয়ের টেইলর আম্পায়ারের একটি সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে পেয়েছেন একটি ডিমেরিট পয়েন্ট। সঙ্গে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানকে করা হয়েছে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা।

আফগানিস্তানের তরুণ অফ স্পিনার মুজিব পেয়েছেন তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট। সঙ্গে তাকে দিতে হবে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা। ব্যাটসম্যান টেইলরের দিকে বল ছুড়ে এই শাস্তি পেয়েছেন তিনি।

তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন হংকংয়ের নিজাকাত খান। রান নিতে গিয়ে বোলারকে ইচ্ছাকৃতভাবে কাঁধ দিয়ে ধাক্কা দেওয়ায় তাকে দিতে হবে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা।

Share.

About Author

Leave A Reply