বাহুবলীর তারকারা মেকাপের আগে দেখতে কেমন ও মেকাপের পরে দেখতে কেমন ছবিতে দেখুন

বাহুবলী, কাটাপ্পা, কালকেয়া, অবন্তিকা, শিবগামি দেবী— বাহুবলীর এই চরিত্রগুলো কে না চেনে। কিন্তু বাস্তবে তারা কারা, তারা কেমন দেখতে জানেন? সাবলীল অভিনয় এবং মেকআপের টাচ বাস্তব থেকে তাদের এতটাই পাল্টে দিয়েছিল যে, আপনজনেরাও তাদের দেখে চিনতে পারেননি। বাহুবলীর এই চরিত্র এবং বাস্তবে সেই মানুষটি কেমন দেখতে দেখে নিন।

প্রভাস: দক্ষিণী এই সুপারস্টারকে বলিউড ফিল্ম ‘অ্যাকশন জ্যাকশন’-এ খুব অল্প সময়ের জন্য দেখা গিয়েছিল। ‘সাহো’র হাত ধরে বলিউডে বড়সড় কামব্যাক(ফিরছেন) করছেন প্রভাস। প্রভাসের ‘বাহুবলী’ লুকের সঙ্গে এই মুখের পার্থক্য কতটা বুঝতে পারছেন?

রানা দাগ্গুবতী: বলিউডের নানা ছবিতে নানা রকমের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে তাকে। আর ‘বাহুবলী’তে বল্লালদেবের চরিত্রে তার অভিনয়েরই শুধু প্রশংসা হয়নি, প্রশংসিত হয়েছিল তার লুক-ও।

প্রভাকর: প্রভাকর বাহুবলী-তে কালকেয়ার চরিত্রে অভিনয় করেছেন। শুধুমাত্র মেকআপ আর অভিনয়ের সাবলীলতায় আপাত নিরীহ চোখের এই মানুষটি মুহূর্তে যেন ভয়ঙ্কর হিংস্র হয়ে উঠেছিলেন

তামান্না ভাটিয়া: হিম্মতওয়ালা, হামশকল, এন্টারটেনমেন্ট, তুতাক তুতাক তুতিয়ার মতো অনেক বলিউড ছবিতেই দেখা গেছে তাকে। কিন্তু বাহুবলীর অবন্তিকা অভিনয় জগতে তাকে একটা অন্য পরিচিতি দিয়েছে।

আনুশকা শেঠি: সাধারণত রোমান্টিক ছবিতেই বেশি অভিনয় করেছেন তিনি। কিন্তু বাহুবলীতে দেবসেনা-র চরিত্রে কখনও রোমান্টিক, কখনও তরোয়াল হাতে শত্রুদের দমন করছেন তো কখনও মায়ের ভূমিকায় দেখা গেছে তাকে।

সত্যরাজ: চেন্নাই এক্সপ্রেসে তাকে দেখেছিলেন দীপিকা পাডুকোনের বাবার চরিত্রে। আর বাহুবলীতে তাকে দেখলেন কাটাপ্পার ভূমিকায়। দুই চরিত্রের লুকের কী ভাবে পরিবর্তন ঘটেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

রম্যা কৃষ্ণণ: দক্ষিণী অভিনেত্রী রম্যা কৃষ্ণণের অভিনয় চিরকালই প্রশংসনীয়। বাহুবলীতে তিনিই মাহিস্মতী সাম্রাজ্যর শক্তিশালী রানি শিবগামি দেবী।

সুদীপ : একজন পার্সি ব্যবসায়ী হিসাবে বাহুবলীতে দেখা গেছে তাকে। সুদীপ দক্ষিণী ছবিতে খুবই পরিচিত মুখ।

নাসের: দক্ষিণী ছবি তো বটেই, বলিউডেও অনেক ফিল্মে দেখা গেছে তাকে। কিন্তু সে সবই ভাল চরিত্রে। নেগেটিভ চরিত্রে তার অভিনয় এবং মেকওভার সত্যিই নজরকাড়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *