ব্রেকিং ব্রেকিং : বিএনপির অনুরোধ – কিন্তু নারাজ ড. কামাল !

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে চাচ্ছেন না। বিএনপির পক্ষ থেকে তাকে প্রার্থী হতে অনুরোধ জানানো হয়।

ড. কামাল হোসেনের শারীরিক অসুস্থতা কথা জানান। গত ৯ নভেম্বর রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা ময়দানের জনসভায়ও তিনি এ কারণে যেতে পারেনি। তবে মোবাইল ফোনে উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন ড. কামাল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, ‘ড. কামাল হোসেনকে আমিও নির্বাচনে প্রার্থী হতে অনুরোধ করেছি। কিন্তু তিনি কোনোভাবেই রাজি হচ্ছেন না।’

ড. কামালের ঘনিষ্ঠ সূত্র তার বরাত দিয়ে জানিয়েছেন, শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি বাসায়ই থাকছেন গেল কয়েক দিন ধরে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে উদ্ভূত রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন ড. কামাল হোসেন। দেশে-বিদেশে তার পরিচতি কাজে লাগিয়ে ঘুরে দাঁড়ায় বিএনপি।

একই সঙ্গে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকারের দাবিসহ সাত দফার পক্ষে জোরালো অবস্থান নেন আ স ম আবদুর রব, মাহমুদুর রহমান মান্না ও বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর মতো দেশের বিশিষ্ট রাজনীতিকরা।

খালেদা জিয়া যত নির্বাচনে অংশ নিয়েছে সবগুলোতে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছে। এজন্যই তার প্রতি এতো হিংসা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিএনপির অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে মাইনাস করতেই কারাগারে বন্দী রাখা হয়েছে। তার কোন চিকিৎসা চলছে না, তিনি এখন গুরুতর অসুস্থ্য।

উল্লেখ্য, নেতাকর্মীদের ব্যাপক উৎসাহ আর উৎসবের আমেজে ২য় দিনের মতো মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। মঙ্গলবার সকাল ১০ টা থেকে শুরু হয় বিএনপির মনোনয়নপত্র বিক্রি।

সকাল ১০ টার দিকে মনোনয়নপত্র বিক্রি হওয়ার কথা থাকলেও নেতাকর্মীরা ভোর থেকেই ভিড় করেছেন বিএনপির নয় পল্টনের কেন্দ্রীয় অফিসে।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টায় খালেদা জিয়ার পক্ষে বিএনপির মহাসচিবের মনোনয়নপত্র কেনার মধ্যে দিয়ে শুরু হয় বিএনপির মনোনয়নপত্র বিক্রি। ১৪ নভেম্বর শেষ হওয়ার কথা থাকলেও সময় বাড়ানোয় চলবে ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত।

মনোনয়নপত্র বিক্রির প্রথম দিনেই বিক্র হয় ১৩২৬ টি। আজ থেকে মনোনয়নপত্র বিক্রি আর জমা দুটাই চলবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *